Sports Bangla

সাহসিকতার জন্য মনিরকে সম্মাননা

সাহসিকতার জন্য মনিরকে সম্মাননা

সাহসিকতার জন্য মনিরকে সম্মাননা
সেপ্টেম্বর ০৭
১৪:১২ ২০১৫

Explore1স্কুল থেকে বাড়ি ফিরছিল দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র সাজ্জাদ হোসেন। হঠাৎ পা পিছলে পড়ে যায় বন্দর থানা এলাকার নিমতলা ট্রাক টার্মিনাল সংলগ্ন খালে। আস্তে আস্তে ডুবে যেতে থাকে। বাঁচার জন্য দুই হাত তুলে আকুতি জানাচ্ছিল সে। ততক্ষণে আশেপাশে জমে যায় কৌতুহলী মানুষের ভিড়। সেই ভিড়ে ছিল অনেকেই কিন্তু কেউই ওই ময়লা পানিতে নামছিল না সাজ্জাদকে উদ্ধারের জন্য।

গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি পড়ছিল তখন। কাছাকাছিই দায়িত্ব পালন করছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের কনস্টেবল মনির আহম্মদ। কৌতুহলী হয়ে তিনিও এগিয়ে যান ভিড়ের দিকে। দেখেন ডুবন্ত সাজ্জাদের বাঁচার আকুল আহ্বান আর পাড়ে দাঁড়িয়ে থাকা মানুষজনের নানা আফসোস। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসছিল না সাজ্জাদকে উদ্ধারে। মনিরের মনে পড়ে গেল তার নিজের ৮ বছর বয়সী ছেলের কথা। আর স্থির থাকতে পারলেন না। পুলিশের পোশাক পরা অবস্থায় সেই ময়লা পানিতে ঝাঁপ দিলেন। প্রথমে ধারণা করেছিলেন খালের পানি হয়তো কোমর সমান হবে। কিন্তু পানিতে নেমেই দেখেন সেই খাল বেশ গভীর। সাজ্জাদকে টেনে তুলতে গিয়ে নিজেরই ডুবে যাওয়ার অবস্থা। তারপরই জীবন বাজি রেখে একসময় তাকে পানি থেকে তুলে আনলেন। খালের পাড়ে ইতিমধ্যে মানুষের ভিড় আরো বেড়ে গেছে। যাদের একজনও ছেলেটিকে উদ্ধার করতে খালে নামলো না তারা সবাই তাকে বাহবা দিতে লাগলো।

Kwality (1)গত ৩০ আগস্ট সকালে মনির আহম্মদের এ সাহসিকতার স্বীকৃতি স্বরূপ ৬ সেপ্টেম্বর রোববার মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড তাকে সম্মানিত করে। তার হাতে তুলে দেয় সম্মাননা স্মারক। এসময় তিনি সাজ্জাদকে উদ্ধারের ঘটনাটি উপস্থিতদের সামনে তুলে ধরতে গিয়ে অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন। ব্যাংকটি এইচএসসি পর্যন্ত সাজ্জাদের পড়াশোনার ব্যয়ভার বহনের দায়িত্বও নেয় এসময়।

এ উপলক্ষে রোববার দুপুরে নগরীর হোটেল আগ্রাবাদের ক্রিস্টাল বলরুমে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আনিস এ খান। তিনি বলেন, ‘হযরত আলী নামের এক ব্যক্তির সাহসিকতার স্বীকৃতি দিতে গিয়ে ২০১২ সালে মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক চালু করে মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক ব্রেভারি অ্যান্ড কারেজ অ্যাওয়ার্ড। তখন হযরত আলীর স্ত্রী ও ২ ছেলেমেয়েকে ঢাকায় এনে পুরস্কৃত করা হয়। তার ছেলেমেয়েদের এইচএসসি পর্যন্ত পড়াশোনার দায়িত্ব নেয় ব্যাংক। হযরত এক সকালে ঢাকার রাস্তায় এক নারীকে দুর্বৃত্তদের হাত থেকে বাঁচাতে গিয়ে নিহত হয়েছিলেন।’

মনির আহম্মদকে আজকের নায়ক আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, ‘পুলিশ সদস্যরা রাস্তায় রোদ-বৃষ্টিতে ধুলাবালি-দূষণসহ নানা বিরূপ পরিস্থিতিতে দায়িত্ব পালন করে। অথচ তাদের বেতন কম।’

ambiagroupপিএইচপি পরিবারের চেয়ারম্যান আলহাজ সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান তার বক্তব্যে বলেন, ‘আমাদের সামনে দু’টি পথ। একটি আরাম-আয়েশের। আরেকটি বন্ধুর। আমি সেই পথটি বেছে নিলাম যেটি ত্যাগের। আজ দেখলাম সেটিই সঠিক ছিল।’ তিনি আরো বলেন, ‘খাবার-দাবার, বাড়ি-গাড়ি হলো প্রয়োজনীয়তা। আর ভালো মানুষ হওয়া হলো উদ্দেশ্য। আনন্দ ছাড়া কাজ কারো উপকারে আসে না। আনন্দের সাথে পরিশ্রম করলে অনেকেই অনেক ছোট অবস্থান থেকে বড় হয়েছে।’

মনিরের সাহসিকতার জন্য মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের পক্ষ থেকে তাকে সম্মানিত করার উদ্যোগের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘সব কাজ সরকার একা করতে পারবে না। কিছু কিছু ভালো কাজ আমাদেরকে সম্মিলিতভাবে করতে হবে। এখন আর পরিস্থিতি আগের মতো নেই। অনেকেই এখন মহান কাজের ব্রত নিয়ে পুলিশ বাহিনীতে যোগ দিচ্ছেন।’

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন দৈনিক আজাদী সম্পাদক এম এ মালেক, দৈনিক পূর্বকোণ সম্পাদক স্থপতি তসলিম উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ কমিশনার আবদুল জলিল মণ্ডল, অতিরিক্ত কমিশনার (প্রশাসন, অর্থ ও ট্রাফিক) এ কে এম শহীদুর রহমান, উপ-কমিশনার (ট্রাফিক-দক্ষিণ) সুজায়েত ইসলাম ও সাজ্জাদ হোসেনের বাবা শাহাদাত হোসেন।

পুলিশ সদস্য মনির আহম্মদের সাহসিকতায় মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের সম্মাননার প্রশংসা করে পুলিশ কমিশনার আবদুল জলিল মণ্ডল বলেন, ‘এ স্বীকৃতির মাধ্যমে ব্যাংকটি তার নামের স্বার্থকতা প্রমাণ করেছে। মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক প্রমাণ করেছে যে এটি পারস্পরিক আস্থার নিদর্শন।’
তিনি আক্ষেপ করে বলেন, ‘আমরা সবাই চাকরিতে যাই কিন্তু সেবার মনোভাব রাখি না। আমাদের এ দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন করতে হবে। সবকিছুর জন্য সরকারের দিকে চেয়ে থাকলে হবে না। দেশকে এগিয়ে নিতে হলে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’ পুলিশ কমিশনার আবদুল জলিল মণ্ডল আরো বলেন, ‘কোনো কাজে যিনি দায়িত্বপ্রাপ্ত তিনিই কাজটি করবেন তা মনে করলে হবে না। অন্যদেরও এগিয়ে আসতে হবে। সবার হাতকে কর্মীর হাতে পরিণত করতে হবে।’ প্রতিটি ক্ষেত্রে চট্টগ্রাম অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে আর সারা দেশ তা অনুসরণ করবে বলে বিশ্বাস প্রকাশ করেন তিনি।

সমগ্র অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনায় ছিলেন মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ফার্স্ট এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট আরিফুল হক। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাজ্জাদ হোসেনের মা জেসমিন আক্তার, মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের কর্মকর্তাবৃন্দ, চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাবৃন্দ, ব্যবসায়ী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। উল্লেখ্য, ইতিমধ্যে চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ কমিশনার আবদুল জলিল মণ্ডল মনির আহম্মদকে পুরস্কৃত করেন তার সাহসিকতার জন্য।

লেখক সম্পর্কে

প্রবীর বড়ুয়া

প্রবীর বড়ুয়া

এই ধরনের আরো লেখা

০ মন্তব্য

এখনো কোনো মন্তব্য আসেনি!

এই মুহূর্তে এখানে কোনো মন্তব্য নেই, আপনি কি একটি মন্তব্য দেবেন?

মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

অক্টোবর ২০২০
সোমমঙ্গলবুধবৃহস্পতিশুক্রশনিরবি
« আগস্ট  
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১