Sports Bangla

সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ড তাইজুলের

সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ড তাইজুলের

সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ড তাইজুলের
অক্টোবর ২৭
০৭:৪০ ২০১৪

ambiagroupদেশের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেটের মালিক ছিলেন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। টানা ৬ বছর রেকর্ডটি নিজের করে রেখেছিলেন তিনি। সোমবার প্রথম টেস্টের ‍তৃতীয় দিনে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সাকিব সামনেই তার রেকর্ড ভেঙে দিয়েছেন তাইজুল ইসলাম।

সাকিব ২০০৮ সালে চট্টগ্রামের মাটিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৩৬ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ৭ উইকেট। সেটাকে ছাড়িয়ে তাইজুলের নতুন রেকর্ড ৩৯ রান দিয়ে ৮ উইকেট। এদিন তাইজুল আরও একটি রেকর্ড ভেঙেছেন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আগের সর্বোচ্চ উইকেট পাওয়ার রেকর্ড ছিল এনামুল হক জুনিয়রের। তিনি ২০০৫ সালে ৯৫ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ৭ উইকেট। তাইজুলের সামনে সুযোগ ছিল এনামুল হক জুনিয়রের রেকর্ডটা নিজের করে নেওয়ার। ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিনে নাটোরের ছেলে তাইজুল ঠিক সেই কাজটি করেছেন। শুধু তাই নয়, বিশ্ব রেকর্ডের ৩০ নাম্বারে চলে এসেছেন তিনি। ১০ উইকেট নিয়ে প্রথম অবস্থানে আছেন ২ জন। ইংল্যান্ডের জিম লেকার ও ভারতের অনিল কুম্বলে। তারা প্রত্যেকেই ১০ উইকেট করে নিয়েছেন।

Bright-sports-shop_bigচলতি বছরের আগস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেন্ট ভিনসেন্টে টেস্টে অভিষেক হয়েছিল তা্ইজুল ইসলামের। অভিষেক টেস্টেই নিজের জাত চিনিয়েছিলেন তিনি। ওই টেস্টে ১৩৫ রান দিয়ে নিয়েছেন ৫ উইকেট। ঢাকা টেস্ট নিয়ে মাত্র ৩ টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা তাইজুলের। এরই মধ্যে ২ বার পাঁচের অধিক উইকেট নিয়েছেন বাঁহাতি এই অফ স্পিনার। নাটোরের ছেলে তাইজুল সাদা জার্সিতে খেললেও এখনও খেলা হয়নি রঙিন পোশাকে।

সোমবার মিরপুরের আকাশ গোমড়া ভাব থাকলেও দর্শক-সমর্থকদের মন থেকে সেসব একদম উধাও হয়ে গেছে। মিরপুরের বাতাসে এক অন্য রকম আবহ। রবিবারের ব্যাটিং ব্যর্থতার কষ্ট এক নিমিষেই ভুলিয়ে দিয়েছেন নাটোরের ছেলে। শুরু করেছেন ভুসিমজি সিবান্দাকে আউট করে আর শেষ করেছেন কামুনগোজি দিয়ে। তাতেই তার ঝুলিতে পুরেছেন ৮ উইকেট।

তৃতীয় দিনের উইকেটে বেশ বৈচিত্র ছিল। এমনটা যে হবে তা আগেই ভাবনায় ছিল। তাইজুলের বেশকিছু বল বেশ টার্ন করছিল আবার কিছু বল অতিরিক্ত বাউন্সও নিচ্ছিল। সিবান্দাকে তার ঘূর্ণি বলে পরাস্ত হতে হয়েছে বেশ খানিকবার। শেষ অবধি নিজের উইকেট রক্ষা করতে পারেননি সিবান্দা। মুশফিকের হাতে তালুবন্দী হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন ১৪ রানের ইনিংস খেলে।

তাইজুলের দ্বিতীয় শিকার সিকান্দার রাজা। প্রথম ইনিংসের সর্বোচ্চ স্কোরার এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ভাল খেলতে থাকা রাজাকে পাওয়ার ক্রিকেট খেলতে প্রলুদ্ধ করে সাকিব আল হাসেনের হাতে বন্দী করিয়েছেন তাইজুল। অবশ্য আউট হওয়ার আগে খেলেছেন ৩২ বলে ২৫ রানের ইনিংস। সিকান্দার রাজার আউটের পর ধৈয্য চ্যুতি ঘটে চাকাভার। তাই তাইজুলের তৃতীয় শিকারে পরিণত হন তিনি। টেস্ট মেজাজে খেলতে থাকা রেগিস চাকাভা শেষ অবধি ৫১ বলে ১০ রান করে আউট হয়েছেন।

Milestone-wedding-1-main color৩ উইকেট নিয়ে ক্ষান্ত হননি তাইজুল। উইকেট পাওয়ার নেশায় মেতে উঠেন তিনি। আরও উইকেট চাই এমন ভাবনা থেকে চতুর্থ উইকেট শিকার করেন চিগাম্বুরাকে বোকা বানিয়ে। সেকেন্ড স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা শুভাগত হোমকে ক্যাচ দিয়ে দ্বিতীয় বলেই সাজঘরের পথ ধরতে হয়েছে জিম্বাবুয়ের অভিজ্ঞ এই অলরাউন্ডারকে। এলডব্লিউর ফাঁদে ফেলে সাজঘরে ফিরতে বাধ্য করেছেন ক্রেগ আরভিনকে। যদিও আরভিন রিভিউর আবেদন করেছিলেন; কিন্তু থার্ড আম্পায়ার তার রিভিউর আবেদন বাতিল করে দিয়েছেন।

আরভিন আউট হওয়ার পর পানিয়াঙ্গারাকে ৬ষ্ঠ শিকারে পরিণত করেছেন তাইজুল ইসলাম। তাকে শামসুর রহমানের ক্যাচ বানিয়ে কোন রান তুলতে না দিয়ে সাজঘরে ফিরিয়েছেন তাইজুল। সপ্তম উইকেট হিসেবে চাতারাকে এলবিডব্লিউর ফাদে ফেলেন এবং অষ্টম উইকেটে কামুনগোজি মুশফিকের ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরে ফেরান তাইজুল ইসলাম।

লেখক সম্পর্কে

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

এই ধরনের আরো লেখা

০ মন্তব্য

এখনো কোনো মন্তব্য আসেনি!

এই মুহূর্তে এখানে কোনো মন্তব্য নেই, আপনি কি একটি মন্তব্য দেবেন?

মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

অক্টোবর ২০২০
সোমমঙ্গলবুধবৃহস্পতিশুক্রশনিরবি
« আগস্ট  
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১