Sports Bangla

রূপগঞ্জ মালিক বাদলের নিষেধাজ্ঞা আজীবন!

রূপগঞ্জ মালিক বাদলের নিষেধাজ্ঞা আজীবন!

রূপগঞ্জ মালিক বাদলের নিষেধাজ্ঞা আজীবন!
ডিসেম্বর ০৯
১৮:২৭ ২০১৪

royal-magnum_bigবাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অধীনস্ত সব ধরণের ক্রিকেট কার্যক্রম থেকে আজীবন নিষিদ্ধ করা হয়েছে লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জের মালিক লুৎফর রহমান বাদলকে। বাংলাদেশের ক্রিকেটকে দেশে-বিদেশে ক্ষতিগ্রস্ত করার অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ হওয়ার কয়েক ঘণ্টা পরই এই শাস্তি পেলেন তিনি।

মঙ্গলকার বিসিবির ডিসিপ্লিনারি কমিটির সভা শেষে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই শাস্তির কথা জানানো হয়। বাদল ছাড়াও লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জের যুগ্ম সম্পাদক তারিকুল ইসলাম টিটুকেও ৫ বছর ও কর্মকর্তা সাব্বির আহমেদ রুবেলকে ৩ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে বিবিসি।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাদল যে ঘটনা ঘটিয়েছে তা বাংলাদেশের ক্রিকেট ও ক্রিকেট বোর্ডের ভাবমূতি দেশে ও দেশের বাইরে চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করছে। সেজন্য তাকে বিসিবির অধীনস্ত সব ধরণের ক্রিকেট কার্যক্রম থেকে আজীবন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

Bright-sports-shop_bigরূপগঞ্জের অন্য দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অবিযোগ, তারা ম্যাচ চলার সময় আম্পায়ারদের ভয়ভীতি দেখিয়েছে।

মঙ্গলবার বিসিবি ও এর কিছু কর্মকর্তাকে নিয়ে ‘আপত্তিকর’ মন্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেও পার পেলেন না বাদল। সন্ধ্যায় ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের (সিসিডিএম) সভায় ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে তাকে সাময়িক নিষিদ্ধ করা হয়। আর ডিসিপ্লিনারি বোর্ডের সভা শেষে রাত সাড়ে ১১ টার পরে তাকে আজীবন নিষিদ্ধ করার ঘোষণা এল।

সভা শেষে সিসিডিএম সভাপতি আ জ ম নাসির সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিবিসি) ডিসিপ্লিনারি কমিটির কাছে বাদলকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। বিসিবি এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার আগ পর্যন্ত ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে নিষিদ্ধ থাকবেন বাদল ও টিটু।

লুৎফর রহমান বাদলের মন্তব্যের জের ধরে উত্তপ্ত হয়ে আছে ক্রিকেটাঙ্গন। পরিস্থিতি ঠাণ্ডা করতে মঙ্গলবারই বিসিবি ও কিছু কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মন্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।

বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের বিপক্ষে রূপগঞ্জের হারের পর বিসিবির বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠে বাদল বলেছিলেন, “আর এরা তো সব চোরচোট্টা। আমি মনে করি, সব কটাই চোর।”

দুঃখ প্রকাশ করে বাদল আশা করছেন, এর মধ্য দিয়ে ক্রিকেটাঙ্গনে সব ধরনের উত্তেজনা ও ব্যক্তিকেন্দ্রিক বিদ্বেষের অবসান ঘটবে।

“নাজমুল হাসান বাংলাদেশের ক্রিকেটের অভিভাবক। আমার ক্রিকেট স্পিরিট তিনি অনুধাবন করতে পারবেন। আশা করি, আমার এই লিখিত বিবৃতির মধ্য দিয়ে সাম্প্রতিক সমস্যার সমাধানে তিনি ইতিবাচক ভূমিকা পালন করবেন। তার হাত ধরে বাংলাদেশের ক্রিকেট সফলতা পাবে বলে আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।”

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে একটি চিঠিও লিখেছেন বাদল। এর আগে বিসিবি সভাপতি প্রসঙ্গে তিনি বলেছিলেন, “মুখে যত বড় কথাই বলুন, উনি নিজে এই ম্যানিপুলেশনের সঙ্গে জড়িত। ওনার কর্মচারী মল্লিককে (বিসিবি পরিচালক ইসমাইল হায়দার মল্লিক) দিয়ে সব করানো হয়। সে-ই সূচি থেকে শুরু করে মাঠ, আম্পায়ার বোর্ডের সব কিছু করে।”

তার মন্তব্যের কঠোর সমালোচনা করে বিসিবি সভাপতি জানান, ক্রিকেটে কোনো বিষফোঁড়া রাখবেন না তিনি।

“অভিযোগ যদি প্রমাণিত হয় তাহলে অবশ্যই ভিন্ন কথা। কিন্তু তার অভিযোগ যদি প্রমাণ করতে না পারে, পরিণতি কি হবে আপনারা বুঝতেই পারছেন।”

এছাড়া বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক ও বোর্ড পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজনকে বাংলাদেশ ক্রিকেটের কলঙ্ক হিসেবে অভিহিত করেছিলেন বাদল।

Ambia all

লেখক সম্পর্কে

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

এই ধরনের আরো লেখা

০ মন্তব্য

এখনো কোনো মন্তব্য আসেনি!

এই মুহূর্তে এখানে কোনো মন্তব্য নেই, আপনি কি একটি মন্তব্য দেবেন?

মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

নভেম্বর ২০২০
সোমমঙ্গলবুধবৃহস্পতিশুক্রশনিরবি
« আগস্ট  
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০