Sports Bangla

বিজয়ের মালা মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের

বিজয়ের মালা মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের

বিজয়ের মালা মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের
মে ২৪
২০:০৬ ২০১৫

Kwality (1)ইডেন গার্ডেনে বিজয়ের মঞ্চ প্রস্তুত। শুধু সেই মঞ্চে উঠে রাজমুকুট পরবে কে তা নির্ধারণই ছিল বাকি। অবশেষে আইপিএল এইটের রাজা পেয়ে গেলো ভারত। মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই সুপার কিংসকে ৪১ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে আইপিএল চ্যাম্পিয়ন হয়ে গেলো রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

চার দিকে সাদা কনফেত্তিদের ওড়াউড়ি। ইডেনের বিজয় মঞ্চ তখন যেন একটি নীল-সাদার সমূদ্র। এরপরই আকাশ আলোকিত করে আলোকচ্ছটা ছড়িয়ে দিচ্ছিল আতশবাজির বাহারি রঙের আলোর মিছিল। এতসব আয়োজন শুধু একটি দলকে ঘিরে। বিজয়ের মালা পরা মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের জন্য।

সেই মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের মাথায় উঠলো আইপিএলের অষ্টম আসরের চ্যাম্পিয়নের মুকুট। সেই কথাটা এই কারণে যে, এই দলটি শুরুতে টানা পাঁচটি ম্যাচ হেরে বসেছিল। তখন কেউ কি ভাবতে পেরেছিলেন মুম্বাই-ই শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়নের মুকুট পড়বে? হ্যাঁ, রোববার রাতে ইডেন গার্ডেনে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত রাজত্ব করে দ্বিতীয়বার আইপিএল ট্রফি জিতলো মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ফাইনালে মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস হেরে গেছে ৪১ রানে।

ambiagroupফাইনালের শুরুটা দারুন করেছিল রোহিত শর্মার দল। মুম্বাই ব্যাটসম্যানদের হাত থেকে আশিষ নেহরা, মোহিত শর্মা, রবিচন্দ্র অশ্বিণ কেউই রক্ষা পাননি। ওভার প্রতি ১০ এর উপর রান তুলে চেন্নাইয়ের সামনে জয়ের জন্য ২০৩ রানের লক্ষ্য ছুঁরে দিয়েছিল মুম্বাই। অবশ্য নিজেদের ইনিংসের শুরুটা একদমই ভাল হয়নি মুম্বাইয়ের। প্রথম ওভারেই ফ্যাফ ডু প্লেসিসের অসাধারণ ফিল্ডিংয়ে কাটা পড়েন ওপেনার পার্থিব প্যাটেল।

ওই ধাক্কা ভালোভাবেই সামাল দেন লেন্ডল সিমন্স এবং অধিনায়ক রোহিত। একের পর এক চার-ছক্কা মেরে ২৫ বলে ফিফটি তুলে নেন মুম্বাই অধিনায়ক। ছয়টি চারের সঙ্গে ছক্কা মারেন দুটি। ৪৫ বলে ৬৮ রানের ইনিংস খেলেন ক্যারিবিয়ান সিমন্স। আট চারের পাশাপাশি ছয় মেরেছেন তিনটি। পরপর এই দু’জন আউট হলেও ম্যাচ মুম্বাইয়ের দিকেই ঝুঁকে ছিল কাইরন পোলার্ডের ১৮ বলে ৩৬ এবং আম্বাতি রাইডুর ২৪ বলে ৩৬ রানের সৌজন্যে। ৩৬ রানে ২টি উইকেট তুলে নিয়েছেন ব্রাভো।

Bright-sports-shop_bigফাইনালের হাইভোল্টেজ ম্যাচে ২০২ রান তাড়া করতে নেমে স্বস্তিতে ছিল না চেন্নাই। মাইক হাসি (৪) থেকে শুরু করে ডোয়াইন ব্রাভো (৯), ডু প্লেসিস (১), সুরেশ রায়না(২৮), ধোনি (১৮) কেউই পেলেন না বড় রানের দেখা। যা একটু লড়েছেন ওপেনার ডুয়েন স্মিথ (৪৮ বলে ৫৭)। ২৫ রানে ৩টি উইকেট নিয়েছেন ম্যাকক্লেনগান। মালিঙ্গা ২৫ এবং হরভজন সিং ৩৪ রানে পেয়েছেন ২টি করে উইকেট। অনবদ্য ব্যাটিংয়ের কল্যাণে ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতেছেন রোহিত।

চ্যাম্পিয়ন: মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ১৫ কোটি রুপি
রানার্সআপ: চেন্নাই সুপার কিংস ১০ কোটি
অরেঞ্জ ক্যাপ: ডেভিড ওয়ার্নার (সানরাইজার্স হায়দরাবাদ) ৫৬২ রান
পার্পল ক্যাপ: ডোয়াইন ব্র্যাভো (চেন্নাই সুপার কিংস) ২৬ উইকেট
উদীয়মান ক্রিকেটার: শ্রেয়াস আইয়ার (দিল্লি ডেয়ারডেভিলস) ৪৩৯ রান
ম্যান অব দ্য ফাইনাল: রোহিত শর্মা (মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স)
টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি ছক্কা: ক্রিস গেইল (রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স) ৩৮ টি ছক্কা
টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি বাউন্ডারি: ডেভিড ওয়ার্নার (সানরাইজার্স হায়দরাবাদ) ৬৫টি বাউন্ডারি
টুর্নামেন্টে সেরা ক্যাচ: ডোয়াইন ব্র্যাভো (সুপার কিংস)
ফেয়ার প্লে অ্যাওয়ার্ড: চেন্নাই সুপার কিংস

লেখক সম্পর্কে

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

এই ধরনের আরো লেখা

০ মন্তব্য

এখনো কোনো মন্তব্য আসেনি!

এই মুহূর্তে এখানে কোনো মন্তব্য নেই, আপনি কি একটি মন্তব্য দেবেন?

মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০২০
সোমমঙ্গলবুধবৃহস্পতিশুক্রশনিরবি
« আগস্ট  
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০