Sports Bangla

ফিফা অবিচার করেছে!

ফিফা অবিচার করেছে!

ফিফা অবিচার করেছে!
জানুয়ারি ১৪
১২:৪৯ ২০১৫

royal-magnum_bigমেসি-রোনালদোর সঙ্গে ফিফা ব্যালন ডি’অর পুরস্কারের তালিকায় এবার বেশ জোর কদমেই এগুচ্ছিলেন জার্মান গোলরক্ষক ম্যানুয়েল ন্যুয়ার। ব্রাজিল বিশ্বকাপে জার্মানিকে চ্যাম্পিয়ন করার ক্ষেত্রে গোলপোস্টে কার্যকরী ভূমিকা পালন করার কারণেই ন্যুয়ারের প্রতি অগাধ আস্থা বেড়েছিল জার্মান ভক্তদের। কিন্তু সব ধারণা বিফলে। নুয়্যার নন, টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফিফা ব্যালন ডি’অর পুরস্কার গেছে রোনালদোর শোকেসে।

কিন্তু এমনটি ভাবতেই পারছে না জার্মান মিডিয়া। ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করেছে তারা। বায়ার্ন মিউনিখের সভাপতি ফ্রেঞ্জ বেকেনবাওয়ারতো বলেই দিয়েছেন, ‘ফিফা অবিচার করেছে।’

গোলরক্ষক হিসেবে ব্যালন ডি’অর জেতার একমাত্র রেকর্ড রাশিয়ার ‘দি ব্লাক স্পাইডার’ খ্যাত লেভ ইয়াসিনের। ১৯৬৩ সালে তিনি জিতেছিলেন এই অ্যাওয়ার্ড। তবে ওই পুরস্কার ছিল শুধু ইউরোপের মধ্যেই সীমাবদ্ধ। তবে এবার বৈশ্বিক এই প্রতিযোগিতায় জার্মান গোলরক্ষক ম্যানুয়েল ন্যুয়ার নতুন ইতিহাস গড়বে, এমনটিই প্রত্যাশা ছিল হিটলারের দেশটির। কিন্তু তালিকায় ন্যুয়ারের অবস্থান তৃতীয়, যা দেখে চক্ষু চড়ক গাছ অনেকেরই।

Bright-sports-shop_bigমোট ভোটের শতকরা ৩৭ দশমিক ৬৬ ভাগ ভোট পেয়ে বিজয়ী রিয়াল স্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। সেখানে বাকি দুই জন মেসি ও ন্যুয়ারের অবস্থান অনেক নিচে। বলা চলে রোনালদো নয়, ন্যুয়ারের লড়াইটা হয়েছে মূলত মেসির সঙ্গে। মেসি পেয়েছেন শতকরা ১৫ দশমিক ৭৬ ভাগ ভোট। সেখানে ন্যুয়ার পেয়েছেন ১৫ দশমিক ৭২ ভাগ ভোট।

জার্মান পত্রিকা ‘ডাই ওয়েল্ট’ এবারের ব্যালন ডি’অর পুরস্কারকে আখ্যায়িত করেছে ‘বাজে কৌতুক’ হিসেবে। মঙ্গলবারের সংস্করণে তারা ডি’অরকে ‘চরম আনন্দদায়ক’ বলেও উল্লেখ করেছে।

অন্যদিকে ‘কিকার’ এক হাত নিয়েছে রোনালদোকে। তাদের মতে, ‘বিশ্বজুড়ে নানা ব্র্যান্ডের মডেল রোনালদো। তিনিই রাজত্ব করছেন’। তাদের অভিযোগ, ‘একজন গোলরক্ষক ও একজন ফরোয়ার্ডের পারফরমেন্সের বিচার এক পাল্লায় হতে পারে না।’

‘ডার স্পাইজেল’ লিখেছে, ‘এখনই সময় এসেছে একজন ক্ষুরধার গোলরক্ষককে তার প্রাপ্য সম্মান জানানোর’। তারা আরো লিখেছে, ‘একজন গোলরক্ষকের যোগ্য সম্মান দেয়া হয় না। বিশ্ব মিডিয়ায় যাদের খ্যাতি বেশি (যেমন মেসি-রোনালদো) তারাই দাপট দেখায়।’

‘কিকার’র সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়ে ‘ফাজ’ তাদের শিরোনাম দিয়েছে, ‘জয় হয়েছে ব্র্যান্ড রোনালদোর’।  তবে বায়ার্নের ক্রীড়া পরিচালনক ম্যাথিয়াস সামার ন্যুয়ারের জন্য আফসোস করলেও অভিনন্দন জানিয়েছেন রোনালদোকে।

বর্ষসেরা কোচ হয়েছেন জার্মানির জোয়াকিম লো। তিনিও বেশ ব্যথিত ন্যুয়ারের জন্য। ‘ফাজ’ পত্রিকায় তিনি বলেছেন, ‘এটা খুবই হতাশাজনক।’ তিনি আরো উল্লেখ করেছেন, ‘এটা সত্য যে বছর জুড়ে মেসি-রোনালদো ৫০-৬০ গোল করেছেন। কিন্তু গোলপোস্টের নিচে ন্যুযারও ছিলেন দক্ষ শিকারী। আমার মতে এই তিনজনই ফিফা ব্যালন ডি’অরের উপযুক্ত।’

ন্যুয়ারের বায়ার্ন সতীর্থ পোলিশ স্ট্রাইকার রবার্ট লেভানডোস্কি অবশ্য অনুতাপে পুড়ছেন। তার মতে, ‘রোনালদোকে ভোট দেয়াটা ছিল ভুল।’ তার মতে, প্রথম পছন্দে তিনি ভোট দিয়েছেন রোনালদোকে। তারপর শোয়েনস্টেইগার ও ন্যুয়ারকে। তিনি জানিয়েছেন, আবার সুযোগ পেলে তিনি তার ভুল শোধরাতে পারতেন।

তবে যাকে নিয়ে এতো হৈ চৈ সেই ন্যুয়ার জার্মান এফএ’র ওয়েবসাইটে লিখেছেন, ‘ফ্যান্টাস্টিক ২০১৪’।

Ambia all

লেখক সম্পর্কে

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

এই ধরনের আরো লেখা

০ মন্তব্য

এখনো কোনো মন্তব্য আসেনি!

এই মুহূর্তে এখানে কোনো মন্তব্য নেই, আপনি কি একটি মন্তব্য দেবেন?

মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০২০
সোমমঙ্গলবুধবৃহস্পতিশুক্রশনিরবি
« আগস্ট  
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০