Sports Bangla

পারছে না চেলসি!

পারছে না চেলসি!

পারছে না চেলসি!
অক্টোবর ২৫
০৪:৪৩ ২০১৫

Explore1হারের বৃত্ত ভাঙতেই পারছে না চেলসি। হারের দুর্ভাগ্যের সঙ্গে যুক্ত হলো ২টি লাল কার্ড। ফুটবলার নেমানজা ম্যাতিচ এবং ম্যানেজার হোসে মোরিনহোর লাল কার্ড। সব মিলিয়ে ওয়েস্ট হ্যামের বিরুদ্ধে বিধ্বস্থ হলো চেলসি। প্রিমিয়ার লিগে দশ জনে খেলে হেরে গেল গতবারের চ্যাম্পিয়ন দলটি। চেলসিকে ২-১ গোলে হারিয়ে চমক দেখাল ওয়েস্ট হ্যাম। এই হারের পরে চ্যাম্পিয়নের খেতাব থেকে ধীরে ধীরে সরে যাচ্ছে ব্লুজরা।

ম্যাচের শুরু থেকেই শক্তিশালী চেলসির সঙ্গে সমানে সমান লড়ে ওয়েস্ট হ্যাম।দশম মিনিটে চেলসির দিয়াগো কস্তার জোরাল ভলিতে বল গোলমুখী না হয়ে ওঠে আকাশে!

সপ্তদশ মিনিটে ফরাসি মিডফিল্ডার দিমিত্রি পাইয়ের ফ্রি-কিক কোনোমতে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন চেলসি গোলরক্ষক আসমির বেগোভিচ। কিন্তু ওই কর্নার থেকেই দারুণ এক হাফ ভলিতে গোল করে স্বাগতিক দর্শকদের উচ্ছ্বাসে ভাসান মাউরো সারাতে। কর্নার থেকে চেলসির কেউই বল বিপদমুক্ত না করতে পারায় বল এসে পড়েছিল সবার শেষে দাঁড়ানো আর্জেন্টিনার এই ফরোয়ার্ডের পায়ে।

Bright-sports-shop_big৩৩তম মিনিটে উইলিয়ানের ফ্রি-কিক ফিরিয়ে দেন স্বাগতিক গোলরক্ষক। ম্যাচে এটাই ছিল চেলসির প্রথম ভালো কোনো সুযোগ। তবে দুই মিনিট পর আরেকটা সুযোগ আসে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। সেস ফাব্রেগাসের কর্নার থেকে হেড করেছিলেন ফরাসি ডিফেন্ডার কুর্ত জুমা। গোলরক্ষক ঠেকালেও বল তার পায়ের ফাঁক দিয়ে চলে যাচ্ছিল গোলে। তবে শুয়ে পড়ে তা কোনোমতে ফেরান মানুয়েল লানসিনি।

বলের প্রায় ৯৫ শতাংশ গোললাইন পার হয়ে গিয়েছিল। তবে নিখুঁত গোললাইন প্রযুক্তি বাকি ৫ শতাংশের পার্থক্য ধরতে পারায় গোলের সংকেত আসেনি রেফারির কাছে।

ওয়েস্ট হ্যামকে রক্ষা করা আর্জেন্টিনার মিডফিল্ডার লানসিনি চার মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগও পেয়েছিলেন। পাল্টা আক্রমণ থেকে আগুয়ান গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে বলও পাঠিয়েছিলেন গোলের দিকে। তবে বল একটুর জন্য চলে যায় ক্রসবার উচিয়ে।

৪২তম মিনিটে উইলিয়ানের বাড়ানো বল ধরে জালে পৌঁছে দিয়েছিলেন ফাব্রেগাস; তবে অফসাইডের জন্য উচ্ছাস করতে পারেননি তিনি।

একটু পরই ১০ জনের দলে পরিণত হয় চেলসি। আগে একটা হলুদ কার্ড দেখা নেমানিয়া মাতিচ দিয়াফ্রা সাকোকে জড়িয়ে ধরে ফেলে দেন। তাকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখিয়ে মাঠ ছাড়া করেন রেফারি। প্রিমিয়ার লিগে ক্রমাগত রেফারির সমালোচনা করে আসা কোচ জোসে মরিনিয়োর মুখে তখন হাসি!

তখন নিজের মনোভাব লুকালেও বিরতির সময় রেফারির সঙ্গে ঠিকই বিবাদে জড়ান তিনি। বিরতির সময়ই তাই তাকে লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠের পাশ থেকে বের করে দেন রেফারি।

বিরতির পর দশ জনের দল নিয়েও সমতা ফিরাতে মরিয়া খেলে চেলসি। ফলও আসে একটু পর। ৫৬তম মিনিটে সমতা ফেরান গ্যারি কাহিল। কর্নার থেকে ঠিকমতো হেড না দিতে পারলেও বল নিচে পড়তেই জোরাল শটে জালে জড়িয়ে দেন এই সেন্টারব্যাক। গ্যালারিতে দাঁড়ানো মরিনিয়োর চেহারায় তখন কোনো ভাবান্তর দেখা যায়নি।

আরেকটি গোলের জন্য একের পর এক আক্রমণ চালিয়েও গোলমুখে সুবিধা করতে পারেনি চেলসি। ৭৮তম মিনিটে ভালো একটা সুযোগ এসেছিল; কিন্তু রামিরেস নেন লক্ষভ্রষ্ট এক শট।

পরের মিনিটেই উল্টো গোল খেয়ে বসে চেলসি। অ্যারন ক্রেসওয়েলের ক্রসে লাফিয়ে উঠে হেড করে বল জালে পাঠান বদলি হিসেবে নামা দীর্ঘদেহী ইংলিশ স্ট্রাইকার অ্যান্ডি ক্যারল।

প্রিমিয়ার লিগে এ নিয়ে পাঁচটি ম্যাচে হারল মরিনিয়োর দল; জয় তাদের মাত্র তিনটি! ১১ পয়েন্ট নিয়ে আপাতত পঞ্চদশ স্থানে আছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। আর লন্ডন ডার্বি জিতে ১০ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে আপাতত দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে ওয়েস্ট হ্যাম।

লেখক সম্পর্কে

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

এই ধরনের আরো লেখা

০ মন্তব্য

এখনো কোনো মন্তব্য আসেনি!

এই মুহূর্তে এখানে কোনো মন্তব্য নেই, আপনি কি একটি মন্তব্য দেবেন?

মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

এপ্রিল ২০২০
সোমমঙ্গলবুধবৃহস্পতিশুক্রশনিরবি
« আগস্ট  
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০