Sports Bangla

পরিসংখ্যানে জার্মানি-আর্জেন্টিনা

পরিসংখ্যানে জার্মানি-আর্জেন্টিনা

পরিসংখ্যানে জার্মানি-আর্জেন্টিনা
জুলাই ১৩
০৬:০৫ ২০১৪

রোববার মারকানার দ্বৈরথে নির্ধারিত হবে সোনালী হাসি কে হাসবেন? এদিনকার মহারণে নির্দিষ্ট হবে জার্মানির ২৪ বছরের শিরোপা খরা ঘুচবে? নাকি ১৯৮৬ সালের পর ফের বিশ্বকাপ গৌরবের মালিক হবে আর্জেন্টাইনরা? অবশ্য সাফসাফ ভাবে এই বিষয়টি জানতে অপেক্ষা ছাড়া কোনো গতান্তর নেই। তবে তার আগে পরিসংখ্যানের বিচারে বিশ্বকাপ ফাইনালের দুই দলের নাড়ি-নক্ষত্র জানার চেষ্টা করতে পারি আমরা-

পরিসংখ্যানে বিচারে দুই ফাইনালিস্ট:
•    রিও ডি জেনিরোর মারকানা স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপ ইতিহাসে অষ্টমবার ফাইনাল খেলতে নামছে জার্মানি। যা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণার্থী দলগুলোর জন্য একটি রেকর্ড। অবশ্য এর মাঝে তিনবার বিশ্বজয়ের স্বাদ নেয়া হয়ে গেছে লুথার ম্যাথিউস ও ফ্রেঞ্চ বেকেনবাওয়ারদের দেশের।
•    সর্বশেষ চারটি ফাইনাল খেলে মাত্র একটিতে জয় পেয়েছে জার্মানি। সেটা এই আর্জেন্টিনার বিপক্ষেই। ১৯৯০ সালের বিশ্বকাপে।
•    গেল শতাব্দীর ষাটের দশক থেকে সর্বশেষ ৭০ বছরের প্রত্যেক দশকেই কমপক্ষে একটি করে বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলা একমাত্র দল জার্মানি। (১৯৫৪, ১৯৬৬, ১৯৭৪, ১৯৮২, ১৯৮৬, ১৯৯০, ২০০২ ও ২০১৪)
•    চলতি বিশ্বকাপে পঞ্চমবারের মতো ফাইনালে ওঠার কৃতিত্ব দেখিয়েছে আকাশি-সাদা শিবির। যার মধ্যে দুবার জিতেছে আর দুবার হেরেছে লাতিন আমেরিকার দলটি।
•    এর আগে দুবার বিশ্বকাপ ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছে আর্জেন্টিনা ও জার্মানি। ১৯৮৬ ও ১৯৯০ সালে। যখন প্রথমবার অর্থাৎ ৮৬ সালে জয় তুলে নেয় দিয়াগো ম্যারাডোনার দল। আর ৯০ সালে লুথার ম্যাথিউসের জার্মানি।
•    এবার নিয়ে দশমবার ইউরোপ বনাম লাতিন আমেরিকা বিশ্বকাপ ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে। যার মধ্যে সাতবারই কাপ ছিনিয়ে নিয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার দল।
•    এবার নিয়ে বিশ্বকাপে সাতবার মুখোমুখি হচ্ছে জার্মানি-আর্জেন্টিনা। এই দল দুটি ছাড়া আর কেবলমাত্র ব্রাজিল-সুইডেন, জার্মানি-যুগোস্লোভিয়া (সার্বিয়া) ফুটবলে যজ্ঞে সাতবার করে পরস্পরের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নেমেছেন।
•    বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে সর্বশেষ ছয় সাক্ষাতে জার্মানি তিনবার জয় তুলে নিয়েছে। এর বিপরীতে আর্জেন্টিনা কেবল একবার হাসি মুখে মাঠ ছাড়তে পেরেছে। বাকি দুটি ম্যাচ নিস্ফলা থেকেছে। এর মধ্যে গেল ২০০৬ সালের বিশ্বকাপে পেনাল্টি শুটআউটের জয়ও আছে।
•    ২০০৬ ও ২০১০ সালের বিশ্বকাপে জার্মানদের কাছে হেরেই বিশ্বকাপ থেকে ছুটি হয়েছে ডিয়াগো ম্যারাডোনার দেশের।
•    গেল ৪০ বছরে বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় পরাজয় ৪-০ ব্যবধানে। সেটা জার্মানির বিপক্ষেই। ২০১০ সালের দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপে।
•    অবশ্য সর্বমোট হেড টু হেডের হিসেবে আর্জেন্টিনা এগিয়ে। জার্মানির বিপক্ষে ২০টি ম্যাচ খেলে ৯টিতে জয় পেযেছে আলবেসেলেস্তিরা। হেরেছে ছয়টিতে। বাকি পাঁচটি ম্যাচ অমিমাংসিত।
•    এই বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা সবচেয়ে বেশি ম্যাচে ক্লিনশিট বজায় রেখেছে। চার ম্যাচে লাতিন আমেরিকার দলটির জালে বল জড়ায়নি। এর পরই অবশ্য জার্মানি। তিন ম্যাচে ফিলিপ লাম বাহিনী কোনো গোল হজম করেনি।
•    বিশ্বকাপের নকআউট পর্বে এখনো একটি গোলও হজম করেনি আর্জেন্টিনা। যদিও তিনটি ম্যাচে অতিরিক্ত সময়ে খেলতে হয়েছে।
•    ১৯৯৪ সালের পর জার্মানি যতগুলো ম্যাচে গোল করেছে প্রত্যেকটিতে জয় কিংবা নুন্যতম ড্র উপহার পেয়েছে।
•    টানা ১৭ ম্যাচ ধরে অপরাজিত জার্মানি। যখন ১২টিতে জয় পেয়েছে ইউরোপের দলটি। আর পাঁচটিতে ড্র।
•    আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপে পাঁচটি পেনাল্টি শুটআউটে অংশ নিয়ে চারটিতে জয় পেয়েছে। অন্যদিকে জার্মানি চারটিতে অংশ নিয়ে চারটিতেই জয় পেয়েছে।
•    মিরোস্লাভ ক্লোসা বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ১৬টি গোল করেছেন। তবে সবচেয়ে মজার বিষয় হলো গোটা আর্জেন্টিনা দলের স্কোয়াড মিলে এই ১৬টি গোল করতে পেরেছে এখন পর্যন্ত।
•    মিরোস্লাভ ক্লোসার (২৩) থেকে কেবলমাত্র লুথার ম্যাথিউস (২৫) বিশ্বকাপে বেশি ম্যাচ খেলার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন। অবশ্য ক্লোসার সমান ২৩ ম্যাচ খেলেছেন পাওলো মালদিনিও। কিন্তু ক্লোসা ফাইনালে অংশ নিলেই ইতালির মালদিনিকে ছাড়িয়ে যাবেন।
•    দুই দলের মধ্যে ক্লোসাই একমাত্র খেলোয়াড় যিনি আগেও বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলেছেন।
•    থমাস মুলার ও মিরোস্লাভ ক্লোসাই কেবলমাত্র ইতিহাসের দুই ফুটবলার যারা টানা দুই বিশ্বকাপে পাঁচটি করে গোল করার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন।
•    মুলার বিশ্বের প্রথম ফুটবলার হিসেবে টানা দুই বিশ্বকাপে গোল্ডেন বুট জয়ের কৃতিত্ব গড়তে পারেন এবার।
•    এবারের বিশ্বকাপে সবচেয়ে সৃজনশীল ফুটবলার লিওনেল মেসি। সতীর্থদের জন্য ২১টি গোলের সুযোগ সৃষ্টি করেছেন বার্সেলোনার এই উইজার্ড।
•    মেসি এই বিশ্বকাপে ৬৫ বার ড্রিবল করার চেষ্টা করেছেন। তার মধ্যে ৩৯ বার প্রতিপক্ষকে কাটিয়ে উঠতে সমর্থ হয়েছেন তিনি।
•    এই বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত প্রলুদ্ধকর ৫০৯টি পাস খেলেছেন হাভিয়ের মাসচেরানো।
•    তাছাড়া মাসচেরানো এই বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ২৮টি ট্যাকলও করেছেন।
•    এখন পর্যন্ত ব্রাজিল বিশ্বকাপে মাত্র ১৫৬ মিনিট খেলে তিন গোল করেছেন আন্দ্রে শুরলে।
•    এই বিশ্বকাপে জার্মান গোলকিপার ম্যানুয়েল ন্যুয়ারের (২৩) থেকে কেবলমাত্র যুক্তরাষ্ট্রের টিম হাওয়ার্ড (২৭) বেশি সেভ করেছেন।
•    লিওনেল মেসি এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপে পাঁচটি গোল করলেও তার কোনটিও নকআউট পর্বের নয়।
•    অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া কিংবা জার্মান ফুটবলার সামি খেদিরা এবার দশম ফুটবলার হিসেবে একই ফুটবল মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগ ও বিশ্বকাপ জেতার কৃতিত্বের অধিকারী হবে।

লেখক সম্পর্কে

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

এই ধরনের আরো লেখা

০ মন্তব্য

এখনো কোনো মন্তব্য আসেনি!

এই মুহূর্তে এখানে কোনো মন্তব্য নেই, আপনি কি একটি মন্তব্য দেবেন?

মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০২০
সোমমঙ্গলবুধবৃহস্পতিশুক্রশনিরবি
« আগস্ট  
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০