Sports Bangla

টাইগাররা এবারই প্রথম

টাইগাররা এবারই প্রথম

টাইগাররা এবারই প্রথম
সেপ্টেম্বর ৩০
১৫:২২ ২০১৫

Explore1সমীকরণ চূড়ান্ত হয়েছে আরও আগেই। তথাপি আনুষ্ঠানিক ঘোষণাটা বাকি ছিল। কথা ছিল ২০১৫ সালের ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ ৮-এ থাকা খেলবে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পরবর্তী আসরে। যা হবে ২০১৭ সালে ইংল্যান্ডে। গত জুলাই মাসে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতে র‌্যাঙ্কিংয়ে সপ্তম স্থান নিশ্চিত ছিল বাংলাদেশের। তাই বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলাটা নিশ্চিত হয় তখনেই। বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির পক্ষ থেকে বুধবার সেই ঘোষণাই দেওয়া হল আনুষ্ঠানিকভাবে।

অপেক্ষা ছিল পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যে কে হবে অষ্টম দল? পরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নৈপুণ্যে পাকিস্তান জায়গা করে নেয় অষ্টম দল হিসেবে। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশ সর্বশেষ খেলেছে ২০০৬ সালে। অবশ্য তখন এটি ৮ দলের টুর্নামেন্ট ছিল না। টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলো অংশ নিয়েছিল তাতে। র‌্যাঙ্কিংয়ের ভিত্তিতে শীর্ষ ৮ দল নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি আয়োজনের পর এবারই প্রথম খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে টাইগাররা।

Wedding Snapsবাংলাদেশ আইসিসির এই এলিট ক্লাবে জায়গা করে নেওয়ায় বাদ পড়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ক্যারিবীয়রা ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে রয়েছে ৯ নম্বরে। তাই আগামী টুর্নামেন্টে চূড়ান্ত পর্যায়ে জায়গা করে নেওয়া ৮ দল হল- অস্ট্রেলিয়া, ভারত, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশ। বাংলাদেশ ২০০২ সালে সবশেষ আসরে গ্রুপপর্যায়ে ৩ ম্যাচের দুটিতে শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হেরেছিল। আর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অবশ্য বড় জয় ছিল একমাত্র অর্জন।

আইসিসির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের ভূয়সী প্রশংসা করা হয়েছে। বলা হয়েছে, ২০১৫ সালের আইসিসি বিশ্বকাপ থেকে বাংলাদেশ দুর্দান্ত পারফর্ম করছে। পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ জিতে নবম স্থান থেকে সপ্তম স্থানে উঠে এসেছে দলটি।

ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পরবর্তী আসরে ম্যাচ থাকছে ১৫টি। দুটি গ্রুপে থাকবে ৪টি করে দল। সেরা দুই দল জায়গা করে নেবে সেমিফাইনালে। গ্রুপিং ও বিস্তারিত সূচি পরে জানানো হবে।

এরপর র‌্যাঙ্কিংয়ের ভিত্তিতে সবচেয়ে বড় বাছাই হবে ২০১৯ সালের বিশ্বকাপ নিয়ে। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ ১২ দল থাকবে সেই বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দৌড়ে। যার মধ্যে সেরা ৮ দল জায়গা করে নেবে সরাসরি। বাকি ৪ দল আরেকটি সুযোগ পাবে। ওই ৪ দল নিয়ে ২০১৮ সালে হবে বাছাইপর্ব আইসিসি ক্রিকেট লিগ চ্যাম্পিয়নশিপ ও আইসিসি ক্রিকেট ডিভিশন। সেখান থেকে বাছাইয়ের মাধ্যমে দুটি দল ১০ দলের বিশ্বকাপের চূড়ান্তপর্বে জায়গা করে নেবে।

Ambia 1

লেখক সম্পর্কে

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

এই ধরনের আরো লেখা

০ মন্তব্য

এখনো কোনো মন্তব্য আসেনি!

এই মুহূর্তে এখানে কোনো মন্তব্য নেই, আপনি কি একটি মন্তব্য দেবেন?

মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

এপ্রিল ২০২০
সোমমঙ্গলবুধবৃহস্পতিশুক্রশনিরবি
« আগস্ট  
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০