Sports Bangla

একগুচ্ছ নতুন ইতিহাস

একগুচ্ছ নতুন ইতিহাস

একগুচ্ছ নতুন ইতিহাস
জুলাই 23
13:30 2015

ambiagroupচট্টগ্রামে চলছে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা ও স্বাগতিক বাংলাদেশের মধ্যকার দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। বৃহস্পতিবার ম্যাচের তৃতীয় দিন। দক্ষিণ আফ্রিকার করা ২৪৮ রানের জবাবে এ দিন বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস শেষ হয়েছে ৩২৬ রানে। ফলে এই প্রথম কোনো টেস্টে (ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং করে) দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে লিড নেওয়ার গর্ব সঙ্গী হয়েছে বাংলাদেশের। এর আগে আরেকটি টেস্টে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে লিড পেয়েছিল বাংলাদেশ। ওই ম্যাচে ৫ উইকেটে জয় পেয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকানরা।

বাংলাদেশের ইনিংসে হাফসেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন ৩ ব্যাটসম্যান; তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও লিটন কুমার দাস। এই প্রথম প্রোটিয়াসদের বিপক্ষে কোনো ইনিংসে এক সঙ্গে বাংলাদেশের ৩ ব্যাটসম্যান ৫০ বা তদূর্ধ্ব রান করার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন।

Kwality- Milestoneবৃহস্পতিবার করা ৩২৬ রানই বর্তমানে দক্ষিণ আফ্রিকানদের বিপক্ষে টেস্টে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ইনিংসের রেকর্ড। সঙ্গে প্রথমবারের মতো কোনো ইনিংসে ৩ শতাধিক রানের রেকর্ডও। আগের রেকর্ডটি ছিল ২৫৯ রানের। ২০০৮ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামেই এই রান করেছিল বাংলাদেশ।

তবে ওভারের হিসেবে ২০০২ সালের ইস্ট লন্ডন টেস্টের কথা বলতে হয়। ওই ম্যাচের তৃতীয় ইনিংসটিতে বাংলাদেশ ব্যাটিং করে সংগ্রহ করেছিল ২৫২ রান; মোট ৮৭.৫ ওভার ব্যাটিং করেছিল তারা। এতদিন যা ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বাংলাদেশের কোনো ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ওভার ব্যাটিং করার রেকর্ড। বৃহস্পতিবার সেই রেকর্ডটিও মুছে দিয়ে নতুন ইতিহাস লিখেছে ‍মুশফিকুর রহিমের দল। কেননা, চট্টগ্রাম টেস্টে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ ব্যাট করেছে মোট ১১৬.১ ওভার।

প্রথম ইনিংসে ৭৮ রান পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে বেশ সাবলিলভাবে শুরু করেছে দুই প্রোটিয়া ওপেনার ডিন এলগার আর স্টিয়ান ফন জিল। শুরু থেকে একপ্রান্তে মুস্তাফিজ এবং অন্য প্রান্তে জুবায়েরকে দিয়ে বোলিং করালেও মুশফিকের হাতে প্রথমেই কিন্তু সাফল্য ধরা দিল না। মুস্তাফিজের বল কিছুটা কঠিন হলেও, এলগার আর ফন জিল বেশ ভালোভাবেই সামাল দেন বাংলাদেশের বোলারদের। মুস্তাফিজ-জুবায়ের ছাড়াও মাহমুদুল্লাহ, সাকিব এবং মোহাম্মদ শহিদকে দিয়ে বোলিং করিয়েছেন মুশফিক। তবে কেউ উইকেটের দেখা পাননি। দক্ষিণ আফ্রিকান দুই ওপেনার খুব সতর্কতার সঙ্গে রানের চাকা এগিয়ে নিয়ে যান।

দলীয় ২২তম ওভারের প্রথম বলের পর আলো-স্বল্পতার কারণে দুই ফিল্ড আম্পায়ার খেলা বন্ধ রাখেন। আলো স্বল্পতা দূর হতে না হতেই বৃষ্টি নামে। এরপর গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির কারণে দুই ফিল্ড আম্পায়ার দিনের খেলা বাতিল ঘোষণা করেন। দ্বিতীয় দিন বৃষ্টির কারণে ২৪.৫ ওভার কম খেলা হয়। এর আগে টেস্টের দ্বিতীয় দিন বুধবারও বৃষ্টির বাগড়ায় দিনের শেষ সেশনের প্রায় পুরোটাই পণ্ড হয়ে যায়। আলো-স্বল্পতার পর বৃষ্টির কারণে খেলা বাতিল হওয়ার সময় দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ছিল বিনা উইকেটে ৬১ রান।  ৩৩ রান নিয়ে ফন জিল এবং ২৮ রান নিয়ে উইকেটে রয়েছেন ডিন এলগার।

explore

লেখক সম্পর্কে

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

স্পোর্টসবাংলা ডেস্ক

এই ধরনের আরো লেখা

০ মন্তব্য

এখনো কোনো মন্তব্য আসেনি!

এই মুহূর্তে এখানে কোনো মন্তব্য নেই, আপনি কি একটি মন্তব্য দেবেন?

মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

অক্টোবর ২০২১
সোমমঙ্গলবুধবৃহস্পতিশুক্রশনিরবি
« আগস্ট  
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১